Header Ads Widget

বরগুনার পাথরঘাটায় দ্বিতীয় স্ত্রীর বাড়ির উঠানে বসে গ‍্যাস ট‍্যাবলেট খেয়ে যুবকের আত্মহত্যা!

শনিবার,০৯ এপ্রিল ২০২২
পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় বরগুনা থেকে পাথরঘাটা দ্বিতীয় স্ত্রীর বাড়িতে গিয়ে গ‍্যাস ট‍্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেছে দুই সন্তানের জনক বিপুল সিকদার (৩৫) নামে এক যুবক। এদিকে বিপুলের প্রথম স্ত্রী মিনতি রানীর দাবী তার স্বামীকে আত্মহত্যা করতে প্ররোচনা করছে কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী বিপ্লবী।


ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের পদ্মা গ্রামে। আত্মহত্যাকারী বাড়ি বরগুনা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কালিবাড়ী। বিপুল পেশায় একজন গরুর হাটে ব্রোকার। এছাড়া কাকড়া ধরা পেশায় নিয়োজিত থাকতো মাঝেমধ্যে।


বিপুলের ছোট মামা স্বপন ডেইলি বরগুনা নিউজকে বলেন, গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যার পরও বরগুনা পৌর মার্কেটের পিছনে বসে আমার সঙ্গে দেখা হয়। রাত নয়টার পরে আমার ছোট বোনের কাছ থেকে জানতে পারি বিপুল পাথরঘাটা গাইন বাড়ি।


বিপুলের ছোট মাসি বরগুনা শহরের আমতলা বসবাসকারী সে ডেইলি বরগুনা নিউজকে বলেন, রাত নয়টার দিকে বিপুল আমাকে ফোন করে বলে, মাসি আমি ট‍্যাবলেট খাইছি তোরা আর আমাকে দেখতে পাবি না। এই বলে ফোনে লাইন রেখে একটি শব্দ হল এরপর আমি হ‍্যালো হ‍্যালো করছি কোন শব্দ হচ্ছে না। রাত সাড়ে নয়টার সময় বিপ্লবি আমাকে ফোন করে বলে আপনার বোনের ছেলে আমাগো বাড়ির উঠানে পড়ে আছে তাকে এসে নিয়ে যান। এরপর রাত ১১টার সময় হাসপাতাল থেকে পুলিশ জানায় বিপুল মারা গেছে।

 

এব‍্যাপারে বিপুলের প্রথম স্ত্রী মিনতি রানী (২৮) ডেইলি বরগুনা নিউজকে বলেন, প্রায়ই বিপুল বিপ্লবীর সঙ্গে ফোনে কথা বলতো এবং ঝগড়া করতো। আমি বিপ্লবীকে ফোন করে অনেক অনুরোধ করেছি আমার দুটি ছেলে আছে তুমি আমার স্বামীকে তোমার কাছ থেকে মুক্তি দাও। উল্টো সে আমাকে বলতো আমাদের বিয়ে হয়েছে, আমার গর্ভে সন্তান। সন্তান জন্ম নিয়ে কি পরিচয়ে বাঁচবে। আমার স্বামীকে আত্মহত্যা করার জন‍্য প্ররোচনা করা হয়েছে। আমি স্বামী হত‍্যার বিচার চাই।


পাথরঘাটা থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত সঞ্জয় মজুমদার ডেইলি বরগুনা নিউজকে বলেন লাশ পাথরঘাটা হাসপাতালে স্হানীয় মেম্বার ও লোকজন নিয়ে আসলে ডাক্তার তাকে মৃত বলে। আমদের উপ পুলিশ পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম সুরাতহাল করে বরগুনা মর্গে থেকে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আমরা পরবর্তীকালে তদন্ত করে ব‍্যবস্হা গ্রহণ করবো। এব‍্যাপারে পাথরঘাটা থানায় ইউডি মামলা নেয়া হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ