Header Ads Widget

বরগুনার আমতলীতে বিরোধীয় জমি নিয়ে সংঘর্ষে নারীসহ আহত-৮

হায়াতুজ্জামান মিরাজ,
আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ

বরগুনার আমতলী সদর ইউনিয়নের শারিকখালী গ্রামে জমিজমা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশে ৪ নারীসহ ৮ জনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানাগেছে, উপজেলার শারিকখালী গ্রামের হানিফ মৃধা ও মনিরুল ইসলাম খলিফা গংদের সাথে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব গাজী গংদের দীর্ঘদিন যাবৎ জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। যুবলীগ নেতা আবু তালেব গাজী আইনকানুন অমান্য করে গায়ের জোরে ওই বিরোধীয় সম্পত্তি ভোগ দখল করতে চাওয়ায় হানিফ মৃধা ও মনির খলিফা একাধিকবার আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে লিখিত আবেদন জানায়।

আজ (মঙ্গলবার) বেলা ১১টার দিকে হানিফ মৃধা ও মনিরুল ইসলাম গংয়ের অংশীদার জাহাঙ্গির হাওলাদার এর স্ত্রী রিনা বেগম (৩২) বাড়ীর পাশে করলা ক্ষেতের পরিচর্যা করতে যায়। এ সময় যুবলীগ নেতা তালেব গাজীর নির্দেশে তার ভাই মাসুদ গাজী, বাদল গাজী, খোকন গাজী, জব্বার গাজী, ফারুক খলিফা, ছত্তার খলিফা, জসিম গাজীসহ আরো ১৫/২০ জন অজ্ঞাত ব্যক্তি লাঠিসোঠা নিয়ে পিটিয়ে রিনা বেগমের হাত ভেঙ্গে ফেলে। এ খবর পেয়ে তার স্বামী জাহাঙ্গির হাওলাদার এগিয়ে আসলে তাকেও মারধোর করে আহত করা হয়। একই সময় হানিফ মৃধার স্ত্রী তাসলিমা বেগম (৫৫) বাড়ীর নিকট কৃষি কাজ করতে থাকা অবস্থায় তাকেও মারধোর করে আহত করে। এ সময় স্বামী হানিফ মৃধা স্ত্রীকে রক্ষায় এগিয়ে এলে তাকেও মারধোর করে কান কেঁটে ফেলা হয়।

ওই ঘটনার কিছুক্ষণ পরে তাসলিমা বেগমের ও হানিফ মৃধাকে মারধোরের কথা শুনে অন্যান্য ওয়ারিশরা ঘটনাস্থলে এগিয়ে আসলে তালেব গাজী গংদের হামলায় হানিফ মৃধা (৬০) শাহাদাত আমিন (২২) মর্জিনাকে (৫৫) মারধোর করে গুরুতর আহত করে।

স্বজন ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসলে তাৎক্ষনিক কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার তাদের মধ্যে রিনা বেগম, তাছলিমা বেগম, হানিফ মৃধা এর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন। বাকীরা আমতলী, পটুয়াখালী ও বরিশাল হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার লুনা বিনতে হক বলেন, আহতদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে। গুরুতর আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আহত হানিফ মৃধা বলেন, যুবলীগ নেতা আবু তালেব গাজীদের সাথে আমাদের জমি নিয়ে বিরোধে ও তার নির্দেশে তার ভাইয়েরা আমাদেরকে পিটিয়ে আহত করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা তালেব গাজী মুঠোফোনে তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ওই জমি আমাদের আর আমাদের জমির কাগজপত্রও সঠিক আছে। গতকাল (মঙ্গলবার) সকালে আমার পক্ষের লোক রিনা আক্তার ও বাদল গাজী জমির কাছে গেলে তাদের মারধোর করেছে হানিফ মৃধা গংরা। বর্তমানে তারা আমতলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মিজানুর রহমান বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ