Header Ads Widget

স্ত্রীর করা মামলায় বরগুনার তালতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ রফিকুল ইসলাম কারাগারে!

সোমবার, ০৪ এপ্রিল ২০২২
মিরাজ,তালতলী(বরগুনা)প্রতিনিধিঃ

নির্যাতন করে স্ত্রীকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ার অভিযোগের মামলায় বরগুনার তালতলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ রফিকুল ইসলামকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।


গতো রবিবার (০৩ এপ্রিল) বিকেলে সাতক্ষীরার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ  বিচারক এমজি আযম এ আদেশ দেন।

 

বরগুনার তালতলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হিসেবে কর্মরত রফিকুল ইসলামের বাড়ি ঝিনাইদহ সদরের হলিধানী প্রতাপপুর গ্রামে। ২০১৩ সালে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ থানায় উপ-পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত থাকা অবস্থায় তিনি তিন লাখ টাকা কাবিনে কালিগঞ্জ উপজেলার পূর্ব নারায়ণপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের মেয়ে তানিয়া আফরিনকে বিয়ে করেন।


মামলা সূত্রে জানা গেছে, পরিদর্শক মোঃ রফিকুল ইসলাম বিয়ের পূর্বে যৌতুক হিসেবে পাঁচ লাখ ও বিয়ের পর তের লাখ টাকা নেন। এরপরও বিশ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী তানিয়াকে নির্যাতন করেন তিনি। দাবিকৃত টাকা না পেয়ে ২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় উত্তরার বাসা থেকে স্ত্রী তানিয়া আফরিনকে মারধর করে তাড়িয়ে দেন স্বামী রফিকুল ইসলামের পরিবারের সদস্যরা। ওই ঘটনার ১৫ দিন পরে বিষয়টি মিমাংসার জন্য (২৫ ডিসেম্বর) পারিবারিক বৈঠক হলে স্ত্রী তানিয়াকে বাড়ীর দোতলায় ডেকে নিয়ে বেদম মারপিট করে চলে যান স্বামী রফিকুল ইসলাম। ওই সময় স্ত্রী তানিয়াকে আহত অবস্থায় স্বজনরা উদ্ধার করে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।


সাতক্ষীরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাড. জহুরুল হায়দার বাবু জানান, ওই ঘটনার পরে ২০২১ সালের ১০ জানুয়ারি স্ত্রী তানিয়া তার স্বামী রফিকুল ইসলাম, শাশুড়ি রাহেলা খাতুন, দেবর সাইফুল ইসলাম ও সাইফুলের স্ত্রী নাহারের নামে সাতক্ষীরার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি পিটিশন মামলা দায়ের করেন। বিজ্ঞ বিচারক অভিযোগটি বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেন। পরে বিচারিক হাকিম ইয়াসমিন নাহার ছয় জনের সাক্ষী গ্রহন করে স্বামী রফিকুলের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলোর প্রাথমিকভাবে সত্যতা পেয়ে তিনি আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।


সাতক্ষীরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক এমজি আযম প্রতিবেদন গ্রহণ করে আসামি রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।


গতো (রবিবার) তালতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল  ইসলাম আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। শুনানির পর বিজ্ঞ বিচারক জামিন আবেদন বাতিল করে আসামিকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।


আদালতের পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান ডেইলি বরগুনা নিউজকে জানান, জামিন বাতিল হওয়ায় পরিদর্শক রফিকুল ইসলামকে সাতক্ষীরা জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ