Header Ads Widget

সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে রাখাইন নারীর ১১টি মহিষ চুরির অভিযোগ!



 

হায়াতুজ্জামান মিরাজ,  আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ
বরগুনার তালতলীতে সাবেক স্বামী অংচান (৫০) ও তার দুই সহযোগির বিরুদ্ধে লাক্রোন তালুকদার (৪৫) নামে এক রাখাইন নারীর ১১টি মহিষ চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে।। 

আজ সোমবার (১৮ এপ্রিল) সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করেছেন ওই মহিষের মালিক রাখাইন নারী লাক্রোন তালুকদার। 

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ২২ বছর পূর্বে তালতলী পাড়ার বসবাসরত লাক্রোন তালুকদারের সাথে একই পাড়ায় বসবাসরত মৃত চথ অং এর ছেলে অংচানের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর বিভিন্ন নারীসহ জুয়া নেশায় আসক্ত থাকায় ১৬ বছর পূর্বে লাক্রোন তালুকদারে স্বামী অংচানকে তালাক দেন। এরপর থেকেই লাক্রোন তালুকদারকে বিভিন্ন সময়ে হুমকি দিয়ে আসছে সাবেক স্বামী। এরই জের ধরে গত ১৫ এপ্রিল ওই রাখাইন নারীর ১১টি মহিষ মাঠে ঘাস খাওয়ানো অবস্থায় সাবেক স্বামী অংচান ও তার দুই সহযোগি ম্যথুজ (৪৭) ও নুর আলম (৪০) চুরি করে নিয়ে যায় বলে তিনি অভিযোগ করেন। চুরি করা মহিষগুলো পাশবর্তী কলাপাড়া উপজেলার এক ব্যক্তির কাছে সাড়ে ৬ লাখ টাকায় বিক্রি করেন বলে ভূক্তভোগী লাক্রোন তালুকদার দাবী করেন। মহিষগুলো উদ্ধার ও প্রশাসনের কাছে চোরদের কঠিন শাস্তির দাবী জানান ওই রাখাইন নারী। 

রাখানইন নারী লাক্রোন তালুকদার বলেন, আমার সাবেক স্বামী পূর্ব শত্রæতার জের ধরে আমার ১১টি মহিষ চুরি করে নিয়ে গেছে।  ১১টি মহিষের দাম প্রায় ৩০ লাখ টাকা। কিন্তু আমার সাবেক স্বামী ওই মহিষগুলো মাত্র সাড়ে ৬ লাখ টাকায় বিক্রী করে দিয়েছে। আমি প্রশাসনের কাছে মহিষগুলো উদ্ধারের দাবি করছি।

অভিযুক্ত সাবেক স্বামী অংচান বলেন, আমার বিরুদ্ধে আমার সাবেক স্ত্রীর আনা অভিযোগ সম্পূর্ন মিথ্যা ও বানোয়াট।

এ বিষয় তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু মুঠোফোনে বলেন, এ বিষয় আমরা কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ